দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি জনজীবনে মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা হয়ে দাঁড়িয়েছে: বিরোধী দলীয় নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক:
দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি নিম্ন মধ্যবিত্ত ও দারিদ্র মানুষের জীবনে মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ। তিনি বলেছেন, দ্রব্যমূল্যের বেসামাল অবস্থায় শুরু হয়েছে পবিত্র রমজান মাস। প্রতিনিয়ত দাম বেড়েই চলছে। অসাধু ক্ষুদ্র ও পাইকারি ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে কৃত্রিম সংকটের মাধ্যমে নিজেদের লোভ-লালসায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন।

সোমবার জাতীয় সংসদে সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে সাধারণ প্রস্তাবের উপর আলোচনায় অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন তিনি। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনে তিনি আরো বলেন, জাতীয় ঐকমত্য ব্যতীত শান্তি ও সমৃদ্ধি স্থায়ী রূপ পেতে পারে না। শত প্রতিকূলতা, বাধা-বিপত্তি ও বৈরিতার মধ্যেও দেশে সুশাসন সুসংহতকরণ এবং গণতন্ত্র চর্চা ও উন্নয়নে কর্মসূচিতে তৃণমূল থেকে জাতীয় পর্যায় পর্যন্ত জনগণের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে আমাদের কাজ করে যেতে হবে।

জাতীয় পার্টির পৃষ্ঠপোষক বেগম রওশন এরশাদ বলেছেন, জাতীয় পার্টি তার রাজনৈতিক অবস্থান থেকে দেশে গণতন্ত্র ও সাংবিধানিক সরকার ব্যবস্থা বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর। জাতীয় পার্টি এলক্ষ্যে প্রধান বিরোধীদল হিসেবে সংসদ ও সংসদের বাইরে গঠনমূলক ও কার্যকর ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। আমরা আশা করছি, একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য পরিবেশে সংবিধানের ধারাবাহিকতা রক্ষা করেই আগামী দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং জাতীয় পার্টি সেই নির্বাচনে অংশগ্রহণের লক্ষ্যে সব রকমের প্রস্তুতি গ্রহণ করছে।
বিরোধী দলের নেতা বলেন, সংসদীয় গণতন্ত্রের কেন্দ্রবিন্দু হলো সংসদ। জনগণের প্রতিনিধিদের নিয়ে গঠিত সর্বোচ্চ এ প্রতিষ্ঠান জনগণের আশা ও আকাক্ষার প্রতীক হয়ে জনমত ও প্রত্যাশাকে ধারণ করে। নাগরিক জীবনের জরুরি ও জনগুরুত্বপূর্ণ সমস্যা সমাধানে সংসদ কার্যকর ভূমিকা পালন করবে এটাই জনগণ আশা করে। সমাজের সকল স্তরের নাগরিক, বিভিন্ন গোষ্ঠী, দল, সংগঠনের চাওয়া-পাওয়া ও স্বার্থকে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে সমন্বয়সাধন করতে হয় জাতীয় সংসদকে। রাজনৈতিক মতপার্থক্য এবং নীতি-আদর্শের ভিন্নতা থাকতে পারে। কিন্তু সংসদকে গণতন্ত্র ও উন্নয়নের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত করার ক্ষেত্রে কোনো ভিন্নতা থাকতে পারে না। তাই বিরোধীদল হিসেবে জাতীয় পার্টি সংসদকে কার্যকর করার ক্ষেত্রে আন্তরিকভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছে।

দেশে কিছুদিন পরপর ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় বিদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি যেমন ক্ষুন্ন হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন রওশন এরশাদ। তিনি বলেন, দুঃখজনকভাবে অগ্নিকান্ড যেন নিত্যদিনের সঙ্গী হয়ে উঠছে। এতে দেশের অর্থনীতিতে অপূরণীয় ক্ষতি সাধন হচ্ছে। অগ্নিকান্ডের ঘটনা বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমাদের অসতর্কতা, অব্যবস্থাপনা ও দায়িত্ব অবহেলার চিত্র সামনে এনেছে। এমন ভয়াবহ অগ্রিকান্ডের ঘটনায় জাতি অবাক ও দুঃখভারাক্রান্ত।
###

Print Friendly, PDF & Email