সংসদ সচিবালয়ের পরিচালক লাবণ্য আহমেদ আর নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক:
জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের জনসংযোগ বিভাগের পরিচালক (উপসচিব) লাবণ্য আহমেদ আর নেই। ভারতের কলকাতার টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় লাইফ সাপোর্টে থাকাকালীন বুধবার বাংলাদেশি সময় দুপুর ১টা ৫৮ মিনিটে তিনি ইন্তেকাল করেন। (ইন্না লিল্লাহে.. .. .. ইলায়হি রাজেউন।) বিগত পাঁচ বছর ধরে দুরারোগ্য ক্যান্সারের সাথে তিনি যুদ্ধ করছিলেন। গত মাসে তার বোনম্যারো ট্রান্সপ্ল্যান্ট করা হয়। কিন্তু অপারেশন পরবর্তী জটিলতায় তার অবস্থার ক্রমশ অবনতি ঘটতে শুরু করে। মৃত্যুকালে তিনি ৩ ছেলে এবং অসংখ্য গুণগ্রাহী, বন্ধু-স্বজন রেখে গেছেন।

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী লাবণ্য আহমেদের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি মরহুমার রুহের মাগফেরাত কামনা এবং তাঁর শোক-সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। লাবণ্য আহমেদের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো: শামসুল হক টুকু, সংসদ উপনেতা মতিয়া চৌধুরী এবং চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী।

লাবণ্য আহমেদ পেশাগত জীবনে একজন দায়িত্বশীল,দক্ষ ও অভিজ্ঞ জনসংযোগ কর্মকর্তা হিসেবে নিজ কর্মক্ষেত্র, গণমাধ্যম এবং তথ্য ও সম্প্রচার ক্ষেত্রে সুপরিচিত ছিলেন। সততা ও নিষ্ঠার পাশাপাশি তাঁর মার্জিত আচরণ এবং চমৎকার ব্যক্তিত্বের কারণে তিনি সবার স্নেহ-ভালবাসা-শ্রদ্ধা অর্জন করেছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিষয়ে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জনের পর ১৯৯৬ সালের জুলাই মাসে সহকারী পরিচালক হিসেবে জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের গণসংযোগ অধিশাখায় যোগদানের পর থেকে সুদীর্ঘ সময়ে সংসদ সচিবালয়ের সকল স্তরের সহকর্মীদের কাছে অত্যন্ত প্রিয়পাত্র ছিলেন তিনি।

লাবণ্য আহমেদ শহীদ পরিবারের সন্তান। তার আপন বড় মামা শহীদ শহীদুল্লা কায়সার এবং মেজ মামা শহীদ জহির রায়হান। তাঁর বাবা নাসির আহমেদ মুক্তিযুদ্ধের একজন সংগঠক ও অস্ত্র প্রশিক্ষক এবং ১৯৭২ সালে দায়েরকৃত বুদ্ধিজীবী হত্যা মামলার বাদী। মা শাহেনশা বেগম ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির নিবেদিত সদস্য।
শোক প্রকাশ করেছেন জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব কে এম আব্দুস সালাম, প্রশাসন অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোঃ নূরুজ্জামান, মানবসম্পদ অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব মাহবুবা পান্না এবং অতিরিক্ত সচিব এম এ কামাল বিল্লাহসহ সংসদ সচিবালয়ের সকল স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

আরও শোক জানিয়েছেন এফএন্ডপিআর অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব মুহাম্মদ সালেহউদ্দীন এবং গণসংযোগ অধিশাখার পরিচালক যুগ্মসচিব মোঃ তারিক মাহমুদ, জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তা কর্মচারী ফোরামের পক্ষে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন সভাপতি এ কে এম জি কিবরিয়া মজুমদারসহ ফোরামের সদস্যবৃন্দ।

 

 

Print Friendly, PDF & Email