মিরপুরে ইষ্টার্ন হাউজিং এ পারিবারিক প্লটে অবৈধ কনস্ট্রাকশন বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা বোনের

নিজস্ব প্রতিবেদক:
রাজধানীর মিরপুরে ইষ্টার্ন হাউজিং এর ই-১৪ নম্বর সাড়ে তিন কাঠার একটি প্লট প্লটে (পল্লবী ২য় পর্ব মিরপুর) আপন ভাইয়ের বিরুদ্ধে অবৈধ কনস্ট্রাকশন এর অভিযোগ করে তা বন্ধের দাবি জানিয়েছেন বোন মানিয়া নাসরিন। এবিষয়ে ইষ্টার্ন হাউজিং লিমিটেড এবং রাজউক এর চেয়ারম্যান এর কাছে লিখিত অভিযোগ করার পরও কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় তিনি মা ও নাবালিকা মেয়েকে নিয়ে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসুচি পালন করেছেন।

রাজউক চেয়ারম্যানের কাছে দেওয়া তার অভিযোগে বলা হয় মিরপুরে ইষ্টার্ন হাউজিং এর ই-১৪ নম্বর সাড়ে তিন কাঠার একটি প্লটটির (পল্লবী ২য় পর্ব মিরপুর) মালিক তারা তিন ভাইবোন। এর মধ্যে তার মেঝো ভাই ফরিদুর রহমান রুবেল ২ কাঠা, ফয়জুর রহমান লেলিন আধা কাটা ও তার মেয়ে উপমা রহমান সিমি ১ কাঠার মালিক। কিন্তুু তার ভাই মো: ফরিদুর রহমান রুবেল দুই কাঠার মালিক হওয়া সত্বেও অন্যদের অবহিত না করে জোরপূর্ব স্থাপনা নির্মানের কাজ শুরু করেছেন। তার দাবি বাড়ী করতে হলে তিনজনকে সম্মিলিত ভাবে সাড়ে তিন কাঠার উপরে নকশা অনুমোদন করিয়ে বাড়ি করতে করতে হবে।

ইতিমধ্যে তারা জানতে পেরেছেন মো: ফরিদুর রহমান পুরো জায়গার উপর হাউজিং লোন করেছে। যা তাদেরকে অবহিত করেননি। তিনি বলেন, ফরিদুর রহমান রুবেল যদি উক্ত প্লটে কনষ্ট্রাকশনের কাজ করে তাহলে তার অপর ভাই মো: ফয়জুর রহমান লেলিন এবং তার মেয়ে উপমা রহমান সিমি এর উক্ত প্লটে কাজ করা ও দখল নেওয়া সম্ভব হবে না। তাছাড়া তার অন্য ভাই মোঃ ফয়জুর রহমান লেলিন বর্তমানে লন্ডনে অবস্থান করছে এবং তার মেয়ে উপমা নাবালিকা। এমতাবস্থায় তার ভাই মো: ফরিদুর রহমান রুবেল সম্পূর্ণ গায়ের জোরে নির্মাণ কাজ শুরু করেছেন। এমতাবস্থায় ফরিদুর রহমান রুবেল যাতেঅপর ২ মালিকের অনুপস্থিতে উক্ত প্লটে কনস্ট্রাকশন কাজ করতে না পারে তার ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য রাজউক চেয়ারম্যান এর কাছে আবেদন জানিয়েছেন।

মানিয়া নাসরিন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মা ও মেয়েকে নিয়ে অবস্থান করার সময় সাংবাদিকদের বলেন, তার মেয়ে নাবালিকা উপমা রহমান নানা মৃত মতিউর রহমানের কাছ থেকে হেবা দলিল মুলে এই প্লটের দেড় কাঠার মালিক। বর্তমানে এই জমির সকল অংশীদার জীবীত থাকার পরও অন্য দুই জনকে না জানিয়ে পুরো প্লটের নামে নকশা অনুমোদন করিয়ে নির্মাণ কাজ শুরু করেছেন তার ভাই এবং বাধা দিলে প্রাণ নাশের হুমকি দিচ্ছেন। নির্মাণ কাজ বন্ধ করার জন্য জানালে তার ভাই বলেন তিনি তার অংশে নির্মাণ কাজ করছেন। কিন্তুু তিনি দুই কাঠার ওপর যদি ভবন নির্মান করেন তাহলে বাকি দেড় কাঠায় ভবন নির্মানের জন্য তারা নকশা অনুমোদন করতে পারবেন না। তাই অবৈধ ভাবে স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ করতে তিনি প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

 

Print Friendly, PDF & Email